চাইলেই তাহসান-মিথিলাকে নিয়ে আর মন্তব্য করা যাবে না

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তারা দুজনই ব্যাপক আলোচিত। তাহসান ও মিথিলার খবর মানেই তুমুল আলোচনা। কখনও আলাদা, কখনও বা একসঙ্গে খবরের শিরোনাম হন তারা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের কোনো ছবি আপলোড হলেও কমেন্টবক্সে হুমড়ি খেয়ে পড়েন ভক্তরা। সবাই যে ইতিবাচক মন্তব্য করেন তা কিন্তু নয়। বিশেষ করে অভিনেত্রী মিথিলার কমেন্টবক্সে অধিকাংশক্ষেত্রেই নেতিবাচক মন্তব্য বেশি লক্ষ্য করা যায়।

সেই নেতিবাচক মন্তব্য বন্ধ করতেই উদ্যেগ নিয়েছেন এই দুই তারকা। তাদের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ফলোয়ার তালিকায় না থাকলে দুই তারকার পোস্টে আর মন্তব্য করা যাবে না। এতদিন উন্মুক্ত থাকা সেই সুবিধা এখন থেকে বন্ধ রেখেছেন তারা।

কয়েকদিন আগেই ফেসবুকের এক লাইভ অনুষ্ঠানে এক হয়েছিলেন তাহসান-মিথিলা। তবে সেটি কোনও নিয়মিত টক শো ছিল না। সামাজিক মাধ্যমে তাহসান ও মিথিলাকে নিয়মিত হেয় করা হয়েছে। বিশেষ করে অভিনেত্রীর ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে তৈরি হয়েছিল বিতর্ক। যা নিয়ে এতদিন চুপ ছিলেন তিনি।

নাভেদ মাহবুবের গেম শো ‘স্যাটারডে নাইট সারপ্রাইজ’-এ তাহসান ও মিথিলার এক হওয়ার উদ্দেশ্য ছিল সাইবার বুলিং বিষয়ে সোচ্চার হওয়া। সেই প্রসঙ্গে মিথিলা বলেছিলেন, ‘সবাইকে নিয়ে আমরা ভালো থাকতে চাই। তাই এখানে ভালো কিছু প্রমোট করতে হাজির হয়েছি। অনুরোধ করব, আমরা খারাপ কিছু বলব না এবং শুনবও না। আমাদের পজিটিভিটির চর্চা প্রয়োজন।’

অন্যদিকে তাহসান বলেন, ‘কাউকে কটু বলার মধ্যে বীরত্ব নেই, এটা আমরা অনেকেই বুঝি না। এই বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলার সময় এসেছে। মূলত সেই ভাবনা থেকেই প্রথমে আকাশ থেকে পড়লেও পরে এই শো করার জন্য সম্মত হই। কারণ, আমরা দুজন কিন্তু কেউ কাউকে কটু কথা বলছি না। অথচ আমাদের হয়ে অন্যরা প্রতিনিয়ত হেনস্থা করছে সামাজিক মাধ্যমে।’

সাইবার বুলিং রুখতে তাহসান-মিথিলা নিলেন প্রাথমিক উদ্যোগ। তাদের ইনস্টাগ্রাম প্রোফাইলে ফলোয়ার তালিকায় না থাকলে দুই তারকার পোস্টে আর মন্তব্য করা যাবে না। এতদিন উন্মুক্ত থাকা সেই সুবিধা এখন থেকে বন্ধ রেখেছেন তারা।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*